কারাগার না পাঁচ তারকা হোটেল!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৬-১৯ ০০:৪১:০০

নাবীল অনুসূর্য :: ছোট্ট সবুজ লনের পরেই এক সুদৃশ্য কংক্রিটের বিল্ডিং। সামনের পুরোটাই কাচ দিয়ে ঘেরা।

দেখলে মনে হবে নির্ঘাত বড় কোনো কম্পানির অফিস। কিংবা বড় কোনো লাইব্রেরিও মনে হতে পারে। কিন্তু ওটা একটা জেলখানা। নাম জাস্টিস সেন্টার লিবেন। অস্ট্রিয়ার স্টিরিয়া অঞ্চলের লিবেন শহরে অবস্থিত বলে নামের শেষে লিবেন জুড়ে গেছে। আসল নাম জাস্টিস সেন্টার, অস্ট্রিয়ান ভাষায় জাস্টিজ্জেনট্রাম। বাংলায় বলা যায়, ন্যায়বিচারকেন্দ্র। কিন্তু ওই কারাগারে আসলে কতটুকু ন্যায়বিচার হচ্ছে, সেটি এক প্রশ্ন বটে। কারাগারের বিষয়টিই তো হলো যে অপরাধ করেছে, তাকে শাস্তি হিসেবে আটকে রাখা। যাতে বন্দিদশায় থেকে উপলব্ধি করতে পারে, সে যেটা করেছিল ভুল করেছিল। কিন্তু লিবেনের এই জাস্টিস সেন্টারে গিয়ে উল্টো মনে হতে পারে, অপরাধ করে ভালোই হয়েছে। নইলে কি আর মুফতে এমন আরামদায়ক জায়গায় থাকা যেত!

হ্যাঁ, ঘটনাটি আসলেই সে রকম। লিবেনের এই জাস্টিস সেন্টারকে জেলখানা না বলে বলা উচিত একটা বিলাসবহুল হোটেল। কোন সুবিধাটি নেই এখানে! প্রত্যেক কয়েদির জন্য আলাদা আলাদা ঘর আছে। তাও ঘিঞ্জি ও স্যাঁতসেঁতে নয়। প্রতিটি ঘরে প্রচুর প্রাকৃতিক আলো আসার ব্যবস্থা আছে। সঙ্গে আছে লাগোয়া বারান্দা। প্রতিটি কামরায় নিজে নিজে রান্না করার সুবন্দোবস্ত আছে। এমনকি কয়েদিদের অতিথি এলে তাদের সঙ্গে গল্পগুজব করার জন্য বসার আলাদা জায়গাও আছে। প্রতিটি ঘরে টিভিও আছে। জেলখানাটিতে কয়েদিদের জন্য জিম আর স্পোর্টস সেন্টারও আছে।

জেলখানাটির নকশা করেন জোসেফ হোহেনসিন। বানানো শেষ হয় ২০০৪ সালের নভেম্বরে। বেশ বড় হলেও এখানে জায়গা হয় মাত্র ২০৫ জন কয়েদির। এত অল্পজনের জন্য এত বড় আর এত সুযোগ-সুবিধাসম্পন্ন কারাগার অস্ট্রিয়ার সরকার কেন বানাতে গেল, সেও এক প্রশ্ন বটে। তবে সেটা খুব বড় রহস্য মনে হবে না, যখন জানবেন পৃথিবীর সবচেয়ে কম অপরাধপ্রবণ দেশগুলোর একটি এই অস্ট্রিয়া। সরকারও তাই অপরাধীদের শাস্তি দেওয়ার বদলে তাদের শুধরে নেওয়ার সুযোগ দিতেই বেশি আগ্রহী। সে জন্যই এমন আরামদায়ক জেলখানার বন্দোবস্ত করা।

সব মিলিয়ে জেলখানাটিকে আগামী দিনের কারাগারের প্রতিনিধি বলেই মনে করা হয়। ধরে নেওয়া হয়, অদূর ভবিষ্যতে পৃথিবীর সব কারাগারই জাস্টিস সেন্টার লিবেনের মতো করে গড়ে তোলা হবে। তবে বিপক্ষেও মত আছে। কারণটিও সহজ, অপরাধ করে যদি এমন আরামের জীবন যাপন করা যায়, তাহলে তো বরং মানুষ অপরাধ করতে আরো উৎসাহিতই হবে।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   বিশ্বনাথ ডেফোডিল এসোসিয়েশন দশঘর শাখার কার্যালয় উদ্বোধন
  •   এসআই পদে নতুন নিয়োগ
  •   এভাবে কত মেয়ের জীবন নষ্ট করবে সালমান : জেসিয়া ইসলাম
  •   সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের নগ্ন ছবি পোস্ট করে ধর্ষিতার প্রতিবাদ
  •   শহরের নয়, শারীরিক সম্পর্কে এগিয়ে গ্রামের মেয়েরা : সমীক্ষা
  •   অতিরিক্ত পুলিশ সুপারে পদোন্নতি পেলেন সিলেটের তাহমিদ
  •   আমিতাভ রেজা আমাকে 'প্রপোজ' করেছিল : সাবা
  •   সালমান খানের সেই রাস্তা অবলম্বন করছেন রাইমা সেন
  •   বগুড়ায় জিয়ার বাড়ি খবর নেয় না কেউ
  •   উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র!
  •   আপনার অতিরিক্ত মেদ কমছে না যেসব কারণে
  •   রক্ত পরীক্ষায় খুব সহজেই ক্যান্সার শনাক্ত!
  •   পৃথিবীর সবচেয়ে আদর্শ দৈহিক গড়নের নারী তিনি!
  •   গহরপুর জামিয়ার ৬১তম বার্ষিক মাহফিল সম্পন্ন
  •   মা হচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী
  • সাম্প্রতিক চিত্র-বিচিত্র খবর

  •   সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের নগ্ন ছবি পোস্ট করে ধর্ষিতার প্রতিবাদ
  •   পৃথিবীর সবচেয়ে আদর্শ দৈহিক গড়নের নারী তিনি!
  •   উড়ন্ত বিমানে বিয়ে পড়ালেন স্বয়ং পোপ (ভিডিও)
  •   বাড়িতে টাকার বিছানা, গুনতে গিয়ে রাত শেষ!
  •   স্ত্রীর দাফনে এসে স্বামী যা করলেন...!
  •   'হানিমুন' এলো যেভাবে...
  •   কুকুরের ডাকে ট্রেনের হর্ন!
  •   একটি ষাঁড়ের জন্য বিয়ে করেননি এই নারী
  •   পুরুষের বেশে নাবালিকাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতায় জড়ালেন মার্কিন নারী!
  •   দস্যুর আত্মার সঙ্গে বিয়ে হল এই সুন্দরীর!
  •   জাপানি পর্ন অভিনেত্রীর বিয়ের খবরে মন ভেঙেছে চীনের
  •   কিছুতেই গোসল করতে চান না স্ত্রী, ডিভোর্স চাইলেন যুবক!
  •   শপিংমলে অন্তরঙ্গ অবস্থায় ধরা পড়ল এই দম্পতি!
  •   যে দেশে বরফ হয়ে যাচ্ছে কুমিরও! (ভিডিও)
  •   সমাজকে ভুল প্রমাণ করতে ধর্ষিতাদের পোশাকের প্রর্দশনী