নিজভূমে পরবাসী মৌলভীবাজারের চা শ্রমিকরা!

আজ চা শ্রমিক দিবস

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৫-২০ ০০:০০:৪৬

শিমুল তরফদার, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :: নিজভূমে যেন পরবাসী মৌলভীবাজারসহর দেশের বিভিন্ন স্থানের চা শ্রমিকরা। কাটাচ্ছেন মানবেতর জীবন। চা গাছ ছেঁটে ছেঁটে ২৬ ইঞ্চির বেশি বাড়তে দেয়া হয় না। চা শ্রমিকের জীবনও যেন ছেঁটে দেয়া চা গাছের মতোই, লেবার লাইনের ২২২ বর্গফুটের একটা কুঁড়ে ঘরে বন্দি। মধ্যযুগের ভূমিদাসের মতোই চা মালিকের বাগানের সঙ্গে বাঁধা তার নিয়তি। এরকম অবস্থায় আজ শনিবার পালিত হচ্ছে চা শ্রমিক দিবস।

চা শিল্প বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্প। জাতীয় অর্থনীতিতে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। মৌলভীবাজারসহ দেশের প্রায় ১৬৫টি চা বাগানের শ্রমিকরা মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন। প্রায় ২০০ বছর ধরে মৌলভীবাজারের ৯২টি চা বাগানে বংশ পর¤পরায় কাজ করছেন চা শ্রমিকরা। তাদের শ্রমে এই শিল্পের উন্নয়ন হলেও শ্রমিকদের ভাগ্যের পরিবর্তন হচ্ছে না। দৈনিক একজন শ্রমিকের মজুরি ৮৫ টাকা। আর সেই সঙ্গে সপ্তাহ শেষে তিন কেজি খাওয়ার অনুপযোগী আটা। তাও আবার ওজনে কম।

মৌলিক চাহিদা পূরণে দীর্ঘদিন ধরে মজুরি বৃদ্ধি, ভূমি অধিকার, বাসস্থান ও চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নয়নসহ বিভিন্ন দাবি তাদের। কিন্তু বাস্তবায়ন না হওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন চা শ্রমিক পরিবারের সদস্যরা। চা বাগানের শ্রমিকরা তাদের শ্রম দিয়ে চা বাগান আগলে রাখলেও তাদের শিক্ষা ও চিকিৎসা এখন সেই অবহেলিত রয়ে গেছে।

সরকার তাদের আবাসস্থল নিজ নিজ মালিকানায় করে দেয়ার আশ্বাস দিলেও এখনো এর কোনো অগ্রগতি হচ্ছে না। আর এ জন্য দীর্ঘদিন ধরে ভূমি নিয়ে আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছেন চা শ্রমিকরা।

চা শ্রমিকরা জানান, বাগানের হাসপাতালে ভালো চিকিৎসার যথেষ্ট অভাব রয়েছে। বাগানে যে কয়েকটা ছোট হাসপাতাল রয়েছে তাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ওষুধ ও ডাক্তার না থাকায় রোগমুক্তি হচ্ছে না। অকালে ঝরে যাচ্ছে অনেক প্রাণ। তাছাড়া বাগানের কিছু কিছু ছেলে-মেয়েরা উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হলেও চাকরির ক্ষেত্রে বড় কোনো পদ পাচ্ছে না।

শ্রীমঙ্গল কালিঘাট ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও চা শ্রমিক নেতা পরাগ বাঁড়ই বলেন, ‘চা শ্রমিকরা সেই ব্রিটিশ আমল থেকে এ দেশে বাস করছে। তারা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযোদ্ধে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিল। সেই চা শ্রমিকরা আজও অবহেলিত। বর্তমান শ্রমিকবান্ধব সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে শ্রমিকদের পক্ষ থেকে দাবি জানাচ্ছি, এই অবহেলিত চা শ্রমিকদের বাসস্থানের জায়গাটুকু যাতে তাদের নিজের নামে করে দেয়া হয়। যাতে বাগান কর্তৃপক্ষ তাদের যখন তখন ভূমি থেকে উচ্ছেদ করতে না পারে।’

সকালে লবণ দিয়ে এক মগ চা আর সঙ্গে দু’মুঠো চাল ভাজা খেয়ে বাগানে যেতে হয়, তার উৎপাদিত চাও দুধ-চিনি দিয়ে খাওয়ার সামর্থ্য তাদের নেই। সারাদিন এক পায়ে দাঁড়িয়ে, মাইলের পর মাইল হেঁটে কঠোর পরিশ্রম। যারা পাতা তোলেন, ২৩ কেজি পাতা তুললেই কেবল দিনের নিরিখ পূরণ হয়, হাজিরা হিসেবে গণ্য হয়। দিনে অন্তত ২৫০টি গাছ ছাঁটতে হয়। এক একর জমিতে কীটনাশক ছিঁটালে তবে নিরিখ পূরণ। দুপুরে এক ফাঁকে মরিচ আর চা পাতার চাটনি, সঙ্গে মাঝে মাঝে মুড়ি, চানাচুর। এই হচ্ছে তাদের দৈনন্দিন জীবন।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ স¤পাদক রাম ভজন কৈরী জানান, চা শ্রমিকদের ২০ দফা দাবি মালিকপক্ষকে লিখিত দেয়ার পর কয়েক দফা দ্বি-পক্ষীয় আলোচনা হয়েছে। তবে মালিকপক্ষ কালক্ষেপণ করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

বাংলাদেশের চা পৃথিবীর ২৫টি দেশে রফতানি করা হয়। আর এই চা উৎপাদনের সঙ্গে যারা সরাসরি জড়িত চা-শ্রমিকরা। কিন্তু চা-শ্রমিকরা সকল নাগরিক সুবিধা ভোগের অধিকার সমভাবে প্রাপ্য হলেও তারা পারিবারিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে বৈষম্যের শিকার বলে প্রতিয়মান।

যাদের শ্রমে অর্জিত হচ্ছে হাজার কোটি বৈদশিক মুদ্রা, তাদের অবহেলিত না রেখে অধিকার বাস্তবায়ন করা হোক এমনটাই প্রত্যাশা চা শ্রমিকদের।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২০ মে ২০১৭/এসটি/আরআই-কে

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ২৮৩ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   গোয়াইনঘাট থেকে বাসররাতে নিখোঁজ বর ৬ দিন পর উদ্ধার
  •   কোথায় হারালেন রাজিন সালেহ?
  •   সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা’য় অভিযান: পৌঁছেছে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মিনি স্টেডিয়াম নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন
  •   ‘যারা আমাদের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে আমরা তাদের কাছে কি হার মানবো?’
  •   ‘মূর্তি’ সরানো বিষয়টি আদালতের সিদ্ধান্ত: কাদের
  •   গণভবন এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু এসপিবিএন সদস্য
  •   ত্রিশালে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩
  •   ৫ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে রাশিয়ায় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি
  •   নিরবেই চলে গেল বুরুঙ্গা গণহত্যা দিবস
  •   সমাজ ও দেশের স্বার্থে সাহিত্যসেবীদের মূল্যায়ন করতে হবে: আসাদ উদ্দিন
  •   ছাত্রের পিছনে শিক্ষকের আসন, সর্বত্র সমালোচনার ঝড়
  •   প্রধানমন্ত্রীকে ধাক্কা মেরে জায়গা নিলেন ট্রাম্প!
  •   ছাড়ের নামে ধুন্ধুমার প্রতারণা, ‘বিশেষ সেলে’ বিক্রি হয় মানহীন বাতিল পণ্য
  •   বিয়ে নয়; উপযুক্ত সঙ্গী পেলে মা হতে চান শ্রুতি!
  • সাম্প্রতিক সিলেট খবর

  •   গোয়াইনঘাট থেকে বাসররাতে নিখোঁজ বর ৬ দিন পর উদ্ধার
  •   কোথায় হারালেন রাজিন সালেহ?
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মিনি স্টেডিয়াম নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন
  •   ৫ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে রাশিয়ায় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি
  •   নিরবেই চলে গেল বুরুঙ্গা গণহত্যা দিবস
  •   সমাজ ও দেশের স্বার্থে সাহিত্যসেবীদের মূল্যায়ন করতে হবে: আসাদ উদ্দিন
  •   ছাত্রের পিছনে শিক্ষকের আসন, সর্বত্র সমালোচনার ঝড়
  •   মোগলাবাজার ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকে’র রমজানের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
  •   ‘আমাকে মিথ্যা মামলায় জেল খাটানো হয়েছে’
  •   চারখাইয়ে বিদ্যুতের দাবীতে ঘন্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ
  •   ওমর ফারুকের ছেলের রোগ মুক্তি কামনায় ২২নং ওয়ার্ড যুবলীগের দোয়া
  •   সিলেট-১ আসনের জন্য যোগ্য প্রার্থী খুঁজছেন শেখ হাসিনা
  •   সিলেটসহ সারাদেশে একই পদ্ধতিতে তারাবিহ পড়ার আহবান
  •   সিলেটে ওঁরাও সম্প্রদায়ের ভূমি দখল চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ শনিবার
  •   মৌলভীবাজার জেলা বিএনপি কমিটিতে স্থান পেলেন যারা