কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের ৫ চাবিকাঠি

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৮-১৩ ০০:৪০:১২

ক্যারিয়ারে সফল হওয়ার স্বপ্ন কার না থাকে? পড়াশোনা শেষ করার পর কিংবা ভার্সিটি থেকে বের হওয়ার আগে সবাই তাদের ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তিত থাকে। বর্তমানে চাকরির বাজারে প্রতিযোগিতা বেড়ে যাওয়ায় পড়াশোনার পাশাপাশি অন্যান্য আনুষঙ্গিক বিষয়ে দক্ষতা অর্জন জরুরি হয়ে উঠেছে।

ভালো চাকরি পেতে হলে পড়াশোনার পাশাপাশি যেসব বিষয়ের দিকে জোর দেওয়া জরুরি—
স্পেশালিটি অর্জন : আজকাল অধিকাংশ কোম্পানিতেই স্পেশালিস্টদের জয়জয়কার। স্পেশালিস্ট হলো কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে ভালো দক্ষতা অর্জনকারী ব্যক্তি।   উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আপনি হয়তো অ্যাকাউন্টিং বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। অ্যাকাউন্টিংয়ের প্রায় সবদিক আপনার নখদর্পণে থাকা মানেই এ বিষয়টির ওপর আপনার স্পেশালাইজেশন রয়েছে। অর্থাৎ বিষয়টিতে আপনি একজন স্পেশালিস্ট। কোম্পানিগুলো স্পেশালিস্ট নিয়োগের প্রতিই বেশি আগ্রহী। তাছাড়া স্পেশালিস্ট বা এক্সপার্টদের জন্য বেশ উচ্চ বেতনের চাকরির অফার করে থাকে কোম্পানিগুলো। তাই এ দিকটাতেই দক্ষতা অর্জন খুবই জরুরি।

কম্পিউটারে দক্ষতা : আপনি ছোট-বড় যে ধরনের চাকরি প্রত্যাশীই হোন না কেন আপনাকে অবশ্যই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। সে কারণে কম্পিউটার সম্পর্কে আপনার স্বচ্ছ এবং সঠিক ধারণা থাকা বাঞ্ছনীয়। বর্তমানে সব ধরনের চাকরিতেই কম্পিউটার লিটারেসি খোঁজা হয়। তাই কম্পিউটারে দক্ষতা ছাড়া ভালো একটা চাকরির আশা করা নিতান্তই বোকামি হয়ে যাবে।

টেকনিক্যাল দক্ষতা : আমাদের দেশে বেকারের তুলনায় চাকরির ক্ষেত্র নিতান্তই সামান্য। এই প্রতিযোগিতামূলক বাজারে আপনার চাকরি নিশ্চিত করার জন্য নিজেকে টেকনিক্যাল বিষয়ে দক্ষ করে তুলতে পারেন। এক্ষেত্রে অটো মেকানিক, কনস্ট্রাকশন কন্ট্রাক্টর, ইলেকট্রিশিয়ান, গার্মেন্ট, মার্চেন্ডাইজার—এ ধরনের অনেক টেকনিক্যাল বিষয়ে নিজের বাড়তি দক্ষতা বাড়াতে পারেন, যা ক্যারিয়ার গঠনে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে।

স্বতন্ত্র অবস্থান : চাকরির বাজারে নিজেকে স্বতন্ত্রভাবে উপস্থাপন খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনার ভ্যালু, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং ট্যালেন্ট- সবকিছুর সঙ্গে আপনার সামগ্রিক চেষ্টা যোগ হলে আপনি আপনার স্বাতন্ত্র্যতা তৈরি করতে পারবেন।

নিজেকে আপডেট রাখুন : সব সময় নিজেকে আপডেট রাখার চেষ্টা করতে হবে। আপনার অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতার একটি পোর্টফোলিও তৈরি করুন। আপনার সিভি নিয়মিত আপডেট করুন। তাছাড়া লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগও নিয়মিত রক্ষা করে চলুন। আর সেই সঙ্গে কখন কোন সুযোগ তৈরি হচ্ছে, সে সম্পর্কে সচেতন থাকুন। এ ধরনের বেশকিছু বিষয়ে নিজের দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা বাড়িয়ে চাকরির এ বাজারে নিজেকে গড়ে তুলতে পারেন আরও বেশি যোগ্য হিসেবে। সব সময় চাকরির বাজারে যোগ্যদের চেয়েও যোগ্য হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার চেষ্টা করতে হবে। এছাড়া প্রাথমিক অবস্থায় ক্যারিয়ার গড়ার পরিকল্পনা নিতে হবে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ১৪৬ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ারের ইন্তেকাল
  •   ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে চালু হচ্ছে ইসরায়েলি প্রযুক্তি
  •   পশুদের সেবাযত্নে অবসর কাটে আলোচিত নায়িকা অঞ্জুর
  •   আসলেই কি ছাত্রদের সঙ্গে একই হলে থাকতে চেয়েছিল ছাত্রীরা?
  •   বুধবার থেকেই বিপিএলের দলগুলোর অনুশীলন শুরু
  •   দার্জিলিং নয় তেঁতুলিয়া থেকেই দেখা যাচ্ছে এমন কাঞ্চনজঙ্ঘা
  •   হঠাৎ রেললাইনে ধাক্কা নারীকে!
  •   সেরা সুন্দরী হয়েও মুকুট হারিয়েছেন যাঁরা
  •   শ্রেণিকক্ষেই ছাত্রীর সঙ্গে সমকামিতা, অতঃপর...
  •   প্রেমিককে বাঁচাতে গিয়ে রেল লাইনে ঝাঁপ প্রেমিকার
  •   যানজট এড়াতে হঠাৎ পুলিশের মোটরসাইকেলে প্রতিমন্ত্রী!
  •   রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ তার হাতব্যাগে ঠিক কত টাকা রাখেন!
  •   বাংলাদেশকে নিয়ে যা বললেন ডি কক
  •   এবার নারী থেরাপিস্টকে গেইলের কুপ্রস্তাব!
  •   ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বিপদ সংকেত’