বিবাহবিচ্ছেদের সাত কারণ!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০১-০৭ ০০:০২:২১

সুখী ও দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনের উদাহরণ দিন দিন কমে আসছে। বিবাহ অতি বিষম বস্তু। সামলানো বড় দায়। তাই সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বিবাহবিচ্ছেদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তুচ্ছ নানা কারণে মানুষ হাঁটছে বিচ্ছেদের পথে। যেন বিচ্ছেদই সম্পর্কের টানাপোড়েন থেকে মুক্তি পাওয়ার সবচেয়ে সহজ সমাধান।

আর ‘ডিভোর্স ল’ইয়ার’ পরম যত্নে ওই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটান। তাই তারাই বিবাহবিচ্ছেদের সাতটি কারণ উল্লেখ করেছেন। পাঠকদের জন্য সেগুলো আলোচনা করা হলো :

১) কথা বন্ধ : দুইজন মানুষ যখন একসঙ্গে থাকেন, একটু আধটু খুঁটিনাটি লেগেই থাকে। মনের রাগ মনে পুষে না রেখে ঝগড়াটা করে ফেলাই উচিত। অনেকেই তা করেন না। মনে ক্ষোভ পুষে রেখে চুপ করে থাকার ফলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। আর কখন যে সে দূরত্ব বিশাল আকার নেয়, কেউ টেরই পান না।

২) যৌনতায় অনীহা : ভালোবাসায় মনের প্রাধান্যের কথা অনেকেই বলে থাকেন। তবে ‘প্লেটোনিক লাভার’রা ভুলে যান শরীর থাকলে, তার চাহিদাও থাকবে। সেই চাহিদা সঠিকভাবে পূরণ না হলে তার প্রভাব সম্পর্কে পড়তে বাধ্য।

৩) বিপরীত স্বভাব :  বিপরীত মেরুতেই চুম্বকের আকর্ষণ থাকে এ কথা সত্য। কিন্তু প্রেমে এই আকর্ষণ যতটা মধুর, ঠিক ততটা বিয়ের ক্ষেত্রে নয়। কারণ বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রীকে একসঙ্গেই বসবাস করতে হয়। সেখানে যদি সকালে দেরীতে ওঠার অভ্যাস থাকে এবং সঙ্গীর ভোরে, তবে ঘটতে পারে বিপত্তি।

৪) পেশার নেশা : আধুনিক জীবনের ইঁদুর দৌড়ে কেউ পিছনে পড়ে থাকতে চায় না। কিন্তু এই প্রতিযোগিতার দৌড়ে কখন মনের মানুষটা পিছনে পড়ে যায়, সেই খেয়াল বেশিরভাগ স্বামী-স্ত্রীর থাকে না। স্বামী-স্ত্রীর অজান্তেই পেশার এই নেশাতেই তিক্ত হয়ে যায় সম্পর্কের মাধুর্য। 

৫) অবজ্ঞা : স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কে দুইজনের গুরুত্বই সমান। আর সেই সম্মান দুইজনকেই বজায় রাখতে হয়। একজন অসাবধান হলেই বিপত্তি। স্বামী যদি স্ত্রীকে খাটো মনে করেন, তাতেও বিপত্তি। আর স্ত্রী যদি নিজেকেই সর্বেসর্বা মনে করেন তাতেও বিপত্তি। 

৬) প্রেমের ভাষা অপছন্দ : শব্দ নাকি ব্রহ্ম। শব্দের মাহাত্ম্যে বিশাল পর্বতকেও টলানো সম্ভব। তবে, এর অপপ্রয়োগে পর্বতের মূষিক প্রসবও হতে পারে। তাই প্রেমের শব্দগুলো চয়নের ক্ষেত্রে হামেশা সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

৭)  টাকার টানাপোড়েন : আমার টাকা আমার, তোমার টাকা তোমার। এই ধারণা যদি স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে চলে আসে, তাহলেই মুশকিল। টাকা প্রিয় বস্তু ঠিকই, তবে দানকেও পরম ধর্ম হিসেবে মেনে চলতে হবে। আর এই পথেই আমি-তুমি তরজা ছেড়ে ‘আমরা’কে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দিতে হবে। যা না করলেই শাদি ডট কমে ‘Error’ দেখা দেবে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ৩০৪ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   উত্তরায় ছাত্রলীগের ধাওয়ায় ক্যাম্পাস ত্যাগ করল ছাত্রদল
  •   কার সঙ্গে সিনেমা হলে গেল শাহরুখ কন্যা সুহানা?
  •   ফের বিমানে স্যামসাং মোবাইলের বিস্ফোরণ, বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গেল জেট এয়ারওয়েজ
  •   যে পাঁচ যুক্তিতে মৃত্যুদণ্ড থেকে বাঁচলেন ঐশী
  •   শেবাগের কাছে 'ভিক্ষা' চেয়েছিলেন শোয়েব, ফাঁস হলো সেই রহস্য!
  •   মায়ের জিন-ই ঠিক করে সন্তান মেধাবী হবে কি না!
  •   সঞ্জয় দত্তের মেয়ের যে ছবিতে নেট দুনিয়ায় ঝড়!
  •   'বুশের জন্য নরক অপেক্ষা করছে'
  •   শিক্ষার্থীদের আত্মবিশ্বাসী হতে হবে: আবু সাহাদাত লাহিন
  •   সৌদি আরবে মরুভূমির নিচে বিশাল সম্পদের সন্ধান!‌
  •   বড়লেখায় খালা শ্বাশুড়িকে পেটালেন শ্রমীক নেতা, তোলপাড়
  •   বড়লেখায় আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
  •   শাবনূরের ভণিতা!
  •   ইন্দোনেশিয়ায় গোপনে গড়ে উঠছে নগ্ন গোষ্ঠী
  •   নারীদের জন্য বিশেষ ইন্টারনেট প্যাকেজ, ৮ টাকায় ১ জিবি ডাটা