যে সম্প্রদায়ের লোকেরা বউদের ঠেলে দেয় পতিতাবৃত্তিতে!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০১-০৯ ০০:৩২:০৬

৭০ বছর হয়েছে ভারত স্বাধীন হয়েছে। কিন্তু এখনও দেশটির নারীরা পাননি তাদের প্রাপ্য সম্মান। নারীর অবমাননার অজস্র ঘটনা প্রত্যেক দিন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে যাচ্ছে। কিন্তু দিল্লির নজফগড়ের পরনা সম্প্রদায়ের মধ্যে যে ভয়াবহ রীতি প্রচলিত রয়েছে, তা কল্পনার অতীত। কারণ এখানে বাড়ির বউদের দিয়ে পতিতাবৃত্তি করানোই রীতি। এবং এই অসম্মানজনক পেশায় নারীদের ঠেলে দেন তাঁদের শ্বশুরবাড়ির লোকেরাই।

যেভাবে এলো এই রীতি:
পরনা সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষদের বাড়িতে কন্যাসন্তান জন্মগ্রহণ করলে বাড়ির লোকজন খুশিই হন। কারণ তারা জানেন, একটু বড় হয়ে ওঠার পরে ‘পন্য’ হিসেবে এই মেয়েই খুলে দেবে তাদের উপার্জনের রাস্তা। পরনাদের মধ্যে ছোটবেলায় মেয়েদের লেখাপড়া শেখানোর রীতি নেই। বরং সাত-আট বছর বয়স হলেই বাবা-মা মেয়েকে পাঠিয়ে দেন কোন দালালের কাছে। সেই দালালের কাজ হয়, পতিতাবৃত্তিতে মেয়েদের প্রশিক্ষিত করা।

১২ থেকে ১৫ বছর বয়সের মধ্যে মেয়েদের বিয়ে দেওয়া হয়। অবশ্য বিয়েটাও এক রকম বাজার। কারণ মেয়েকে ঘরে নিয়ে যাওয়ার জন্য শ্বশুরবাড়ির লোকেরা মেয়ের বাবা-মার হাতে তুলে দেন মোটা অঙ্কের টাকা। যারা যত বেশি দর হাঁকতে পারেন, তাদের ঘরেই যায় মেয়ে।

বিয়ের কয়েক দিন পর থেকেই  বাড়ির বউয়ের জন্য ‘কাস্টমার’ খোঁজা শুরু হয়। এ ক্ষেত্রে ‘দালাল’-এর কাজ করেন মেয়েটির স্বামী। প্রত্যেক রাতে নতুন নতুন ক্রেতা আসে পতিতাবৃত্তিতে নামা নতুন বউয়ের কাছে। মেয়েটির পারিশ্রমিক ওঠে তার স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির অন্যান্য সদস্যদের হাতে।

পরনাদের মধ্যে বহু কাল থেকে এই রীতি চলে আসছে। দারিদ্রপীড়িত পরনাদের সংসার চলে মূলত পতিতাবৃত্তির মাধ্যমে বাড়ির বউয়ের উপার্জিত অর্থেই। মেয়েদের অভিভাবকরাও মেনে নিয়েছেন এই প্রথা। আর পরনা সম্প্রদায়ের মেয়েরা? তাদের মধ্যে এই রীতি নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে, কিন্তু প্রতিবাদের সাহস নেই। কারণ পতিতাবৃত্তিতে রাজি না হলে শ্বশুরবাড়িতে মেয়েদের উপর চলে অকথ্য অত্যাচার, এমনকী সময় বিশেষে হত্যাও করা হয়।

কোন মানবাধিকার সংগঠন কিংবা নারীবাদী সংগঠন পরনা নারীদের অধিকার রক্ষায় কখনও সরব হয়নি। কোন সরকারও তাদের দিকে বাড়িয়ে দেয়নি সাহায্যের হাত। সত্যি বলতে কী, পরনাদের মধ্যে প্রচলিত এই ভয়াবহ প্রথার কথা সম্প্রদায়ের বাইরে খুব একটা বেশি কেউ জানে না। তবে আশার কথা এই যে, সম্প্রতি বিভিন্ন জাতীয় সংবাদমাধ্যমে একটু একটু করে প্রকাশ পাচ্ছে এই আদিম প্রথার খবর। এতে পরনা নারীদের দুর্দশা মোচনে সরকার উদ্যোগী হবে বলে আশা করা যায়।

সূত্র: এবেলা

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ৭২০ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   কোথায় হারালেন রাজিন সালেহ?
  •   সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা’য় অভিযান: পৌঁছেছে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মিনি স্টেডিয়াম নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন
  •   ‘যারা আমাদের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে আমরা তাদের কাছে কি হার মানবো?’
  •   ‘মূর্তি’ সরানো বিষয়টি আদালতের সিদ্ধান্ত: কাদের
  •   গণভবন এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু এসপিবিএন সদস্য
  •   ত্রিশালে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩
  •   ৫ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে রাশিয়ায় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি
  •   নিরবেই চলে গেল বুরুঙ্গা গণহত্যা দিবস
  •   সমাজ ও দেশের স্বার্থে সাহিত্যসেবীদের মূল্যায়ন করতে হবে: আসাদ উদ্দিন
  •   ছাত্রের পিছনে শিক্ষকের আসন, সর্বত্র সমালোচনার ঝড়
  •   প্রধানমন্ত্রীকে ধাক্কা মেরে জায়গা নিলেন ট্রাম্প!
  •   ছাড়ের নামে ধুন্ধুমার প্রতারণা, ‘বিশেষ সেলে’ বিক্রি হয় মানহীন বাতিল পণ্য
  •   বিয়ে নয়; উপযুক্ত সঙ্গী পেলে মা হতে চান শ্রুতি!
  •   সত্যিই কি নায়ক-নায়িকারা টাকার জন্য 'সবকিছু' করতে রাজী?
  • সাম্প্রতিক আন্তর্জাতিক খবর

  •   প্রধানমন্ত্রীকে ধাক্কা মেরে জায়গা নিলেন ট্রাম্প!
  •   আমেরিকা দেখতে গিয়ে ফিরছেন না লাখ লাখ পর্যটক
  •   মিশরে খ্রিস্টানদের বহনকারী বাসে গুলি, নিহত ২৩
  •   সৌদিতে না দিলেও ভ্যাটিকানে ঘোমটা দিলেন মেলানিয়া!
  •   পোপের সঙ্গে দেখা করলেন ট্রাম্প
  •   ফের হামলার হতে পারে যুক্তরাজ্যে: সর্বোচ্চ সতর্কতা
  •   ট্রাম্পকে হাত ধরতে দিলেন না মেলানিয়া (ভিডিও)
  •   ম্যানচেস্টার হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস
  •   ম্যানচেস্টারে হামলা: নিহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে
  •   যুক্তরাজ্যে কনসার্টে বোমা, হামলাকারী ‘শনাক্ত’
  •   রক্তাক্ত যুক্তরাজ্য, নিহত ১৯
  •   সৌদি আরবে ইসলাম নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প
  •   ‘ধর্ষণ’ করল বাবা, ‘খুন’ করল দাদি
  •   মিয়ানমার উপকূলে চীনা যুদ্ধজাহাজ, উদ্বেগে ভারত!
  •   ভারত-চীন সীমান্তে ধরা পড়ল চীনের গোয়েন্দা কবুতর!