অ্যাসপারগিলাস টুবিনজেনসিস ধংশ করবে প্লাস্টিক!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-১০-০৯ ১০:১৯:৩৮

সিলেটভিউ ডেস্ক :: প্লাস্টিক নষ্ট হয় না, এটাই জানা ছিল এতদিন। কিন্তু এবার জানা গেল, প্লাস্টিককে ‘খেয়ে’ ফেলতে পারে বিশেষ এক ধরনের ছত্রাকও! তারা ভেঙে টুকরো টুকরো করে দিতে পারে প্লাস্টিক অণুগুলিকে বেঁধে রাখার বন্ড বা ‘হাত’ গুলিকে। তার ফলে ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এই দ্রব্যের অণুগুলি। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই মাটিতে মিশে গিয়ে নিশ্চিহ্ন হয়ে যেতে পারে সেই সব প্লাস্টিক, যারা ১০ লক্ষ বছরেও মাটিতে মিশে যায় না।
 
প্লাস্টিককে ‘বধ’ করার এমন একটি ছত্রাকের সন্ধান মিলেছে বলে দাবি করেছেন চাইনিজ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেসের একদল বিজ্ঞানী। পাকিস্তানের গবেষকদের সঙ্গে সম্মিলিত গবেষণা চালিয়ে ইসলামাবাদের আবর্জনার স্তূপ থেকে সেই প্লাস্টিক বিনাশী ছত্রাকের হদিস পেয়েছেন তারা। তাঁদের গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে পরিবেশ বিষয়ক আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান জার্নাল ‘এনভায়রনমেন্টাল পলিউশান’ এ।
 
গবেষকরা যে ছত্রাকটির হদিস পেয়েছেন, তার নাম অ্যাসপারগিলাস টুবিনজেনসিস। ছত্রাকটি জন্মায় মাটিতে। তবে গবেষণাগারে ওই ছত্রাককে প্লাস্টিকের ওপরেও জন্মাতে দেখেছেন গবেষকরা। এটি থেকে বেরিয়ে আসে এক ধরনের এনজাইম বা উেসচক, যা প্লাস্টিকের অণুগুলিকে বেঁধে রাখার বন্ডগুলিকে ভেঙে টুকরো টুকরো করে দেয়। আর সেটা করে অত্যন্ত দ্রুত গতিতে। ফলে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই একটা প্লাস্টিক পুরোপুরি ক্ষয়ে গিয়ে মাটিতে মিশে যেতে পারে। এই প্রক্রিয়াতেই মরা গাছপালা বা প্রাণীদের জৈব বর্জ্যের ওপর বসে ছত্রাক তাদের নিশ্চিহ্ন করে দেয়।
 
গবেষণায় দেখা গেছে, প্লাস্টিকখেকো ছত্রাকটির বিভিন্ন মাধ্যমে আচার-আচরণে ভিন্নতা থাকে। তারা কতটা দক্ষতার সঙ্গে প্লাস্টিক অণুকে ভাঙতে পারবে, তা নির্ভর করে কোন মাধ্যমে আর কোন তাপমাত্রায় তাদের রাখা হচ্ছে তার ওপর। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ২০১৪ সালে বিশ্বে প্লাস্টিক উত্পাদনের পরিমাণ ছিল ৩১ কোটি ১০ লক্ষ টন। যা ২০৫০ সালে হবে ১ হাজার কোটি ১২ লক্ষ ৪০ হাজার টন। এই পরিস্থিতিতে পরিবেশের স্বার্থে প্লাস্টিক বর্জ্য ধ্বংস করা জরুরি। সে ক্ষেত্রে প্লাস্টিকখেকো ছত্রাকরা আগামী দিনে কী ভূমিকা নিতে পারে, সেটাই এখন দেখার বিষয়।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/০৯অক্টোবর২০১৭/ডেস্ক/আআ

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ১৩৫ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   ফেঞ্চুগঞ্জ বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে অগ্নিকান্ড
  •   শাবির ভর্তি প্রক্রিয়া দেশের সবচেয়ে সুন্দর ও স্বচ্ছ: শাবিপ্রবি ভিসি
  •   সাংবাদিক মহসীনের পিতার মৃত্যুতে বিএনপি,স্বেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদলের শোক
  •   ফেঞ্চুগঞ্জ মুক্ত দিবস আজ
  •   পতাকা বিক্রি করে গর্বিত ছাতকের ফেরিওয়ালারা
  •   মানবাধিকার দিবসে মানবতার পাশে 'রুরাল টু আরবান'
  •   শিববাড়ি ইউনিট ছাত্রদলের শোক
  •   জেরুজালেম নয় আবু দিস হোক ফিলিস্তিনের রাজধানী, সৌদির প্রস্তাব
  •   'এই জালিয়াতির অপরাধে অপুকে আইনগতভাবে শাস্তি পেতে হবে'
  •   নামমাত্র দামে বিক্রি জার্মানির একটি গ্রাম!
  •   বিপিএলে খেলার সুবাদে কপাল খুলল মালিঙ্গার
  •   ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত বাতিলের আহ্বান আরব লীগের
  •   স্মার্টফোন পানিতে ভিজে গেলে কী করবেন?
  •   আইফেল টাওয়ারের ওপর দড়িতে হেঁটে বিশ্বরেকর্ড (ভিডিও)
  •   যে প্রাসাদে বিয়ে হবে বিরাট-আনুশকার!
  • সাম্প্রতিক তথ্য-প্রযুক্তি খবর

  •   স্মার্টফোন পানিতে ভিজে গেলে কী করবেন?
  •   ১৭ ডিসেম্বর কী ঘটবে পৃথিবীতে?
  •   স্বেচ্ছায় মৃত্যুর থ্রি-ডি মেশিন আবিষ্কার!
  •   পৃথিবীর মতোই এই গ্রহে এলিয়েনদের বাস!
  •   ভুয়া অ্যাকাউন্ট রুখতে ফেসবুকের নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ
  •   বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশে নিষিদ্ধ হবে 'সোফিয়া'
  •   প্রধানমন্ত্রীকে যা বলল সোফিয়া (ভিডিও)
  •   ১০ হাজার কর্মী নিয়োগ দেবে ইউটিউব
  •   ফেসবুক পেইজ থাকার সুবিধা জেনে নিন
  •   মঙ্গলগ্রহে 'কামানের গোলা'র সন্ধান!
  •   বাক্স বন্দি হয়েই ঢাকায় এলো ‘সৌদি নাগরিক’
  •   চালু হল অ্যাপ নির্ভর সাইকেল
  •   ম্যাসেজ টাইপের সময় হাতেই আইফোন ৬ বিস্ফোরণ
  •   প্যাটার্ন লক ভুলে গেলে অ্যান্ড্রয়েড ফোন রিসেট করার নিয়ম
  •   ফের দেখা যাবে 'সুপারমুন'!