'যদি মন কাঁদে তুমি চলে এসো, চলে এসো এক বরষায়'

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৭-১৮ ০০:১৯:০৩

শামছুল হক মিলাদ :: লেখকরা লেখতে ভালোবাসেন, লেখা-লেখিতেই তাদের ধ্যান জ্ঞান। টানা লিখতে পারার অসম্ভব ক্ষমতা সব লেখকের হয়না। কিছুদিন লিখার পর অনেকেই থমকে দাঁড়ায়। লেখা-লেখির প্রতি গভীর অনুরাগ সবার তখন থাকে না। কিন্তু হুমায়ুন আহমেদের ছিলো। অনেক বেশি ছিলো। টানা ৪০ বছর বাংলা সাহিত্যে লিখে গেছেন। তার মধ্যে ৩০-৩৫ বছর ছিলেন তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়।  এতো লেখালেখির পর হুমায়ুন আহমদ বলতেন জীবন এতো ছোট কেনো।

শুধু লেখা-লেখি নয়, গান রচনায় দারুণ পারদর্শী ও ছিলেন হুমায়ুন আহমদ। নিজের নির্মিত প্রায় সব ছবিতেই হুমায়ুন আহমদ নিজের লেখা গান ব্যবহার করতেন। তার মধ্যে অন্যতম একটি ,\'যদি মন কাঁদে তুমি চলে এসো, চলে এসো এক বরষায়।\'

তুমি চলো এসো যদি মন কাঁদে, আমাদের মন কাঁদে তোমার জন্য। আরেকটা বর্ষা চলো গেলো ,নবধারা জলে ছায়ানট কিংবা পিচঢালা পথে তরুণ-তরুণীরা ভিজতে ভিজতে কাক ভেজা হয়ে গেলো। সবধারা জলে আত্নাশুদ্ধিতে তোমার লেখা গল্পের মতো করে অনেকেই শুদ্ধি হতে চাইলো। শুধু এই বর্ষায় তোমাকে পাওয়া গেলো না। সময়ের হিসেবে তোমায় ছাড়া এটি কততম বর্ষা? হিসেব কষতে চাই না, ভিতরটা যে ঢুকরে ওঠে।

জ্যেৎস্না হচ্ছে, নদীতে বান ডাকছে তুমি নেই ফিরবেনা আর কখনো এটাই সত্য -তবু মন কাঁদে তুমি ফিরো এসো এক বরষায়।

বাংলা সাহিত্যের প্রবাদ পুরুষ স্যার হুমায়ুন আহমদ, ১৯৪৮ সালের ১৩ ই নভেম্বর নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বাবার চাকরির সূত্রে ঘুরে বেরিয়েছেন সারা দেশ জুড়ে। ঘুরে বেরানোর মতো নামটা পরির্বতন করেছেন দ্রুত। পিতা ফয়জুর রহমান নিজের নামের সাথে মিল রেখে রাখলেন শামসুর রহমান, তারপর কাজল, সেখানে স্থায়ী হয়নি দ্রুত পরির্বতনে হলেন হুমায়ুন আহমদ। স্কুলে পড়ালেখার সময়ে এই নামটার প্রতি বিরাগ জন্মেছিলো হুমায়ুনের। কারণটা মোঘল সম্রাট হুমায়ুনের বারবার শের শাহর হাতে পরাজিত হওয়া। অবশ্যে পরিণত হওয়ার সাথে সাথে এসব আর ঘ্রাস করেনি থাকে।

বগুড়া জিলা স্কুল থেকে মেট্রিক এবং ঢাকা কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে অর্নাস। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ডাকোটা স্টেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পলিমার কেমিস্ট্রিতে পি. এইচ. ডি। পরবর্তীতে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় দিয়ে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করলে স্থায়ী হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হিসেবে।

সাহিত্য জগতে ডুবে থাকা এই মহান পুরুষ পরবর্তীতে অধ্যাপনা ছেড়ে ঝুঁকে পড়েন গল্প, উপন্যাস, নাটক, সায়েন্স ফিকশন, আর চলচ্চিত্রে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ৩০১ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   ছাতকে প্রবাসীর বাড়ির ‘কেয়ারটেকার’ মহিলার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ
  •   কমলগঞ্জে ভারতীয় মদ ও গাঁজাসহ আটক ১
  •   শাবিতে কিশোরগঞ্জ এসোসিয়েশনের নবীনবরণ বৃহস্পতিবার
  •   শাবিতে কিশোরগঞ্জ এসোসিয়েশনের নবীনবরণ বৃহস্পতিবার
  •   এইচএসসি’র ফলাফলে গোয়াইনঘাট তোয়াকুল কলেজের সাফল্য
  •   প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে হাওর উন্নয়ন পরিষদের সভা
  •   বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে উসমান চেয়ারম্যানের ত্রান বিতরণ
  •   শ্রীমঙ্গলে স্বামী হত্যায় স্ত্রীর স্বীকারোক্তি
  •   গোয়াইনঘাটে আওয়ামীলীগ নেতা আলা উদ্দিনের দাফন সম্পন্ন
  •   শিক্ষামন্ত্রীকে মামলা করার পরামর্শ দিলেন প্রধানমন্ত্রী
  •   জৈন্তাপুরে উপজেলা পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্ট-১৭এর উদ্বোধন
  •   জৈন্তাপুরে ৩দিন ব্যাপি ফলদ বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন
  •   ফেইসবুকে ‘বিশ্বনাথকে’ নিয়ে শিক্ষকের কটুক্তি
  •   সিদ্দিকুরের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর
  •   তিনতলা ৩টি ভবন উড়িয়ে দেয়া সম্ভব জৈন্তাপুরে উদ্ধার বিস্ফোরক দিয়ে
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   সিলেট অঞ্চলে ক্ষুদ্র কুটির শিল্পের সম্ভাবনা
  •   মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্লিজ, প্রলয়ের আগেই হস্তক্ষেপ করুন!
  •   খালেদা জিয়ার লন্ডন মিশনের অন্তরালে কী?
  •   একজন অক্লান্ত শামীমা চৌধুরী
  •   ইউকে ভিজিট ভিসা, আপনাকে যা অবশ্যই জানতে হবে
  •   গ্রাম্য সালিশ ও চোখে দেখা কঠিন বাস্তবতা
  •   শাবানাকে এ কী বললেন তসলিমা নাসরিন!
  •   পর্ন
  •   ফখরুলের কান্না, কাদেরের সহানুভূতি আর শাবানার অভিনয়
  •   'নয়ন তোমায় পায় না দেখিতে, তবু তুমি রয়েছ নয়নে নয়নে'
  •   একজন তোফায়েল ও আ স ম রবের বাড়িতে পুলিশ
  •   সদ্য স্বাধীন দেশে, এক বিস্ময়কর সাহিত্য প্রতিভা হুমায়ুন আহমেদ
  •   আহা চিকুনগুনিয়া
  •   দাঙ্গা হাঙ্গামা
  •   আওয়ামী লীগের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ