বিশ্বের ব্যয়বহুল ৫ সামরিক যান

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০১-১০ ০০:০৪:১৪

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল কিছু যানের মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে বিমানবাহী রণতরী, সাবমেরিন ও ব্যয়বহুল বিমান। দ্য রিচেস্ট'র প্রতিবেদন অনুযায়ী নিচে তুলে ধরা হলো তেমন ৫ টি ব্যয়বহুল সামরিক যানের তথ্য।

১. জেরাল্ড ফোর্ড
মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস জেরাল্ড ফোর্ড নির্মাণে ১৩ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হয়েছে। এটি ১,১০৬ ফুট লম্বা। এটি রাডারে ধরা পড়ে না। দুটি রানওয়ে রয়েছে এর ওপরে। জাহাজটিতে পাঁচ হাজার মানুষ কাজ করেন, তাদের মধ্যে চার হাজার মেরিন সেনা ও নাবিক। এর ওজন এক লাখ টন। ৮০টি বিমান ধারণক্ষমতা রয়েছে এটির। 

২. কুইন এলিজাবেথ
যুক্তরাজ্যের বিমানবাহী রণতরী এইচএমএস কুইন এলিজাবেথ। এটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৯.৩ বিলিয়ন ডলার। এর দৈর্ঘ্য ৯১৮ ফুট। ৬৫ হাজার টন ওজনের এ বিমানবাহী রণতরীটি ১০ হাজার মাইল চলতে পারে কোনো জ্বালানি না নিয়েই। জাহাজটির চারটি শক্তিশালী জেনারেটর রয়েছে। এগুলো একসাথে চালু করা হলে এটি দ্রুত গতিতে চলতে এবং পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়। 

৩. ডিডিজি ১০০০ জুমওয়াল্ট-ক্লাস ডেস্ট্রয়ার
প্রাথমিকভাবে ৩.৮ বিলিয়ন ডলার ব্যয় ধরা হলেও পরবর্তীতে নানা অস্ত্রে সজ্জিত করতে গিয়ে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ডিডিজি ১০০০ জুমওয়াল্ট-ক্লাস ডেস্ট্রয়ারের নির্মাণব্যয় দাঁড়িয়েছে সাত বিলিয়ন ডলার। আর এতে যোগ করা হয়েছে বিশ্বখ্যাত রেইলগানও। এছাড়া এটি শত্রুর রাডারেও সহজে ধরা পড়বে না। 

৪. এইচএমএস অ্যাসটিউট
৫.৫ বিলিয়ন ডলারের এ সাবমেরিনটি একটি নিমিজ ক্লাস সাবমেরিন। এটি ৩০ নট বেগে চলতে পারে। এর টর্পেডো ৩০ মাইল দূর থেকেও শত্রুপক্ষের জাহাজ ডুবিয়ে দিতে সক্ষম। এর মিসাইলের পাল্লা এক হাজার মাইল। এছাড়া নানা আধুনিক যন্ত্রপাতিও রয়েছে এতে। 

৫. চার্লস ডি গাউলি
চার বিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে ফ্রান্সের এ বিমানবাহী রণতরিটি। এটি বাস্তবে ১৯৮৬ সালে কমিশনপ্রাপ্ত হয়। তবে নানা কারণে এটি কাজ শুরু করতে পারেনি। এরপর নানা সমস্যা কাটিয়ে সম্প্রতি পারমাণবিক শক্তিচালিত এ জাহাজটি কাজ শুরু করেছে। 

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : ২৭১ বার

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   নিহত লিটুর পরিবারের পাশে হুইপ সেলিম উদ্দিন
  •   রাগীব আলী ও তার ছেলের জামিন হয়নি
  •   'মফিজ উদ্দীন চৌধুরী দাখিল মাদরাসা সারাদেশের জন্য অনুকরণীয়'
  •   '২৪ঘণ্টার মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি পাচ্ছে হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ'
  •   গণিপুর বয়েজ ক্লাবের সভা অনুষ্টিত
  •   ছোটকাগজ 'শীতলপাটি'র বর্ষপূর্তি ও ঈদ সংখ্যার পাঠ উন্মোচন
  •   কিছুটা সুস্থ বাউল আব্দুর রহমান দর্পন থিয়েটারে
  •   ছাতক ডিগ্রি কলেজে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষে আহত ৫
  •   বিয়ানীবাজারের আলীনগরে দু'গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১২
  •   নদী অলিম্পিয়াড প্রতিযোগীতায় চ্যাম্পিয়ন শাবিপ্রবি
  •   সিলেটে মালিক শ্রমিকদের পরিবহণ ধর্মঘট স্থগিত
  •   ‘শফিক চৌধুরীর নেতৃত্বে বিশ্বনাথে যুবলীগ ঐক্যবদ্ধ’
  •   বাংলাদেশ পোস্টম্যান ও ডাক কর্মচারী ইউনিয়নের বিদায়ী সংবর্ধনা
  •   ইউএসও'র পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা
  •   দক্ষিণ সুরমা কলেজ বার্ষিকী দখিনা’র প্রকাশনা উৎসব
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   একজন অক্লান্ত শামীমা চৌধুরী
  •   ইউকে ভিজিট ভিসা, আপনাকে যা অবশ্যই জানতে হবে
  •   গ্রাম্য সালিশ ও চোখে দেখা কঠিন বাস্তবতা
  •   শাবানাকে এ কী বললেন তসলিমা নাসরিন!
  •   পর্ন
  •   ফখরুলের কান্না, কাদেরের সহানুভূতি আর শাবানার অভিনয়
  •   'নয়ন তোমায় পায় না দেখিতে, তবু তুমি রয়েছ নয়নে নয়নে'
  •   একজন তোফায়েল ও আ স ম রবের বাড়িতে পুলিশ
  •   সদ্য স্বাধীন দেশে, এক বিস্ময়কর সাহিত্য প্রতিভা হুমায়ুন আহমেদ
  •   'যদি মন কাঁদে তুমি চলে এসো, চলে এসো এক বরষায়'
  •   আহা চিকুনগুনিয়া
  •   দাঙ্গা হাঙ্গামা
  •   আওয়ামী লীগের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ
  •   অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস দ্বারা সৃষ্ট রোগ
  •   সন্তানের সমকামীতা;‌ ব্রি‌টে‌নে বহু বাংলা‌দেশী প‌রিবা‌রে নীরব কান্না