পড়ার বই নেই, ঘুমাতেই লাইব্রেরীতে আসে শিক্ষার্থীরা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৬-১১ ০১:৩৩:৪২

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার নয় বছর পার হলেও সমৃদ্ধি হয়নি সেন্ট্রাল লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সেন্টারের । লাইব্রেরী ঘুরে দেখা গেছে- দ্বিতীয় তলায় বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি, শিক্ষক-কর্মকর্তা-গবেষকদের জন্য একটি এবং অন্যান্য অনুষদের শিক্ষার্থীদের জন্যে একটি করে রুম থাকলেও নেই প্রয়োজনীয় বই। রিডিং রুমে বইয়ের সেলফ আছে কিন্তু সেলফ গুলোতে নেই বই। অধিকাংশ সেলফগুলোই ফাঁকা। জার্নাল কক্ষেও নেই পর্যাপ্ত সংবাদপত্র। প্রয়োজনীয় বই, দেশি-বিদেশী জার্নাল, দৈনিক পত্রিকা না থাকায় সাধারণত লাইব্রেরী মাড়াতে আসে না ছাত্র-ছাত্রীরা। কিছু শিক্ষার্থী আসলেও প্রয়োজনীয় বই না পেয়ে ঘুমিয়েই সময় কাটান তারা। 

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, লাইব্রেরীতে পর্যাপ্ত বই নেই অথচ নিজেদের বই নিয়ে সেখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়না। এসব কারণে শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরী মুখী হচ্ছে না। সীমিত বইয়ে সব সময় সবার চাহিদা থাকে না। পর্যাপ্ত পরিমাণ বই না থাকায় আর প্রয়োজন মতো বই ভেতরে আনতে না দেওয়ায় শিক্ষার্থীরা সেখানে তেমন যান না।

লাইব্রেরী সূত্রে জানা যায়, প্রায় পাঁচ হাজার কপি বই এখানে থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১ টি বিভাগের মধ্যে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা , লোকপ্রশাসন, ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন সিস্টেম, উইমেন এ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ, রাষ্ট্রবিজ্ঞাসহ মোট ৬টি বিভাগের কোন বই এখনো গ্রন্থাগারে নেই। আবার যেই বিভাগগুলোর বই সেখানে আছে তাও পর্যাপ্ত পরিমাণ না।

বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগারের সহকারী পরিচালক আব্দুস সামাদ প্রধান বলেন, বই কেনার দায়িত্ব হচ্ছে উপাচার্য এবং প্রকৌশলীর। বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর প্রথম প্রজেক্টের টাকা দিয়ে বই কেনা হয়েছিল প্রায় ষাট লক্ষ টাকার। এর পরে গত ২১ শে বই মেলা থেকে প্রায় দুই লক্ষ টাকার বই কেনা হয়। তবে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় বইয়ের সংকট এখনো রয়েই গেছে। 

শিক্ষার্থীদেরকে কীভাবে আরো বেশি করে গ্রন্থাগারমুখী করা যায় এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, যে সকল বিভাগের বই নেই সে সকল বিভাগের বই যোগান দিতে পারলে এবং চাহিদা মোতাবেক বিশেষ করে প্রতিটি বিভাগের গবেষণা সম্পৃক্ত বই সংগ্রহ করলে শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরীতে আসবে। ইতোমধ্যে চাকরির প্রিপারেশন সম্পৃক্ত কিছু বই জব কর্ণারে সংগ্রহ করে রাখা হয়েছে, যা শিক্ষার্থীদের লাইব্রেরীতে আসার চাহিদা বাড়িয়ে দিয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে উপর মহলের সুদৃষ্টিতে সেন্ট্রাল লাইব্রেরী ও ইনফরমেশন সেন্টারকে কাঙ্খিত মানে নেওয়া সম্ভব বলে জানান এ কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ‘বীর নিবাস’ উদ্বোধন করলেন এমপি কয়েস
  •   পবিত্র ওমরাহ্ পালনে যাচ্ছেন সাংবাদিক মঞ্জুর হোসেন খান
  •   বাহুবলে তিন মাদ্রাসাছাত্র নিখোঁজ
  •   সিলেটে ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন
  •   চুনারুঘাটে মাকে বেঁধে মেয়েকে গণধর্ষণের অভিযোগ
  •   সাবেক মেয়র পাপলুর মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল
  •   সিলেটের ১৯ টি আসনে জমিয়তের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা
  •   বিশ্বনাথে আ’লীগ নেতার বাড়িতে হামলা, নারীসহ আহত ৫
  •   পার্বত্য চট্টগ্রাম: সমস্যা ও সমাধান বইয়ে বিশেষ ছাড়
  •   রাজনগরে পাহাড় ধসে শ্রমিক নিহত
  •   সেরা শহীদ মিনারটিই বানাতে চায় স্কুল ছাত্র রাহি
  •   ইংরেজিতে দাওয়াত কার্ড পীড়া দেয় শেখ হাসিনাকে
  •   জকিগঞ্জে দপ্তরী নিয়োগে অনিয়ম-স্বজনপ্রীতির অভিযোগ
  •   শমশেরনগরে উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন
  •   আবার যেন অন্ধকারে না পড়ি: প্রধানমন্ত্রী
  • সাম্প্রতিক শিক্ষা-ক্যাম্পাস খবর

  •   এক ছাত্রীর জন্য পরীক্ষা স্থগিত ৪৯ দিন!
  •   ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষা হবে নতুন পদ্ধতিতে
  •   প্রশ্ন ফাঁস: হাই কোর্টের রুল
  •   ‘এসএসসিতে প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ মিললেই পরীক্ষা বাতিল’
  •   এসএসসি পরীক্ষার সময় 'ফেসবুক-টুইটার' বন্ধ থাকবে
  •   ঢাবি রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট নির্বাচন: আ.লীগ ২৪, বিএনপি ১
  •   এক পরীক্ষায় ৫ বার ফলাফল প্রকাশ
  •   পাবিপ্রবিতে রসায়ন অলিম্পিয়াড ২০১৭ অনুষ্ঠিত
  •   জাতীয়করণ ছাড়া ঘরে ফিরবেন না এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা
  •   ‘ঢালাও এমপিও দেয়া হবে না’
  •   যে কারণে ডাক্তারি পড়তে চীনে যাচ্ছেন ভারতীয়রা
  •   ঢাবির সেই শিক্ষিকাকে অব্যাহতি
  •   চীনে স্কলারশিপে বিনা খরচে পড়াশোনা, পাবেন লাখ লাখ টাকা
  •   ৬ কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিল
  •   পরিকল্পনা মাফিক এগুলে IELTS-06 তেমন দূরহ কিছু না